মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভিশন ও মিশন

             বান্দরবান জেলার মানুষ শান্তিপ্রিয় বিধায় অপরাধ সংগঠনে এ জেলার মানুষের সংশ্লিষ্টতা কম। তদুপরি যে সকল অপরাধ সংগঠিত হয় তা দমনে বান্দরবান জেলা পুলিশ সর্বদা তৎপর রয়েছে। জেলা পুলিশের প্রতিটি সদস্যের সর্তক অবস্থানের কারনেই জেলা সদর সহ সকল থানার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অত্যন্ত ভাল। বাংলাদেশের যে কোন জেলার চেয়ে বান্দরবান জেলার অপরাধ পরিসংখ্যান সন্তোষজনক। জেলার অপরাধ পরিসংখ্যান পর্যালোচনায় এখানে চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাই এর মতো অপরাধ নেই বললেই চলে। খুন, অপহরণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের মতো অপরাধ পূর্বের তুলনায় অনেকাংশে হ্রাস পেয়েছে। তদুপরি অপরাধ দমনে ও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়নে জেলা পুলিশের প্রতিটি সদস্যের পাশাপাশি আপামর জনসাধারণের সমন্বয়ে গঠিত কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম সমান তালে চলমান। সাম্প্রতিক সময়ে বান্দরবান জেলা পুলিশ এবং জেলা প্রশাসন যৌথভাবে বান্দরবান জেলায় অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা প্রদান, তাদেরকে পার্শ্ববর্তী কক্সবাজার জেলায় স্থানান্তর প্রক্রিয়া সাফল্যের সাথে সম্পন্ন করেছে। রোহিঙ্গারা যেন দেশের অন্য কোথাও ছড়িয়ে-ছিটিয়ে যেতে না পারে সেজন্য জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়াও রোহিঙ্গা ইস্যুটি নিয়ে জেলায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য বিভিন্ন স্থানে সমাবেশ করা সহ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় কমিটি গঠন করা হয়। মন্দির ও বৌদ্ধ বিহারে ২৪ ঘন্টা পুলিশ মোতায়েন করা হয়। জঙ্গীবাদ বিরোধী বিভিন্ন সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করা হয়। ভাড়াটে ও ভাসমান লোকের তালিকা প্রণয়ন করা হয়। এ সার্বক্ষনিক যে কোন সন্ত্রাসী কার্যক্রম মোকাবেলার জন্য চৌকস পুলিশ সদস্যেদের সমন্বয়ে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট গঠন করা হয়। এছাড়াও অপরাধী গ্রেফতার, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, মাদকদ্রব্য উদ্ধার, মামলা সমূহ তদন্তে বান্দরবান জেলা পুলিশের বিশেষ অবদান রয়েছে।

ছবি


সংযুক্তি




Share with :

Facebook Twitter